Header Ads

চীনের বিরুদ্ধে ট্রাম্প 'কর' যুদ্ধে প্রস্তুত


চীনের বিরুদ্ধে বাণিজ্যিক 'কর' যুদ্ধের জন্য নিজেকে প্রস্তুত বলে ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রে আমদানি হওয়া চীনের বিভিন্ন পণ্যের ওপর নতুন করে কর আরোপের চিন্তা করছেন ট্রাম্প। অংকের হিসেবে এই করের পরিমাণ দাঁড়াবে ৫০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।
সিএনবিএস টেলিভিশনকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, আমি ৫০০ বিলিয়নের যুদ্ধে যেতে প্রস্তুত। আর আমি এটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে করছি না। আমি দেশের সঠিক সিদ্ধান্তের জন্য এমনটা করতে যাচ্ছি।
প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এমন এক সময়ে এই কর আরোপের পক্ষে নিজের শক্ত অবস্থান আবারও তুলে ধরলেন যখন আগামী সপ্তাহ থেকেই আগের আরোপ করা কর কার্যকর হতে যাচ্ছে। চীনের বিভিন্ন পণ্যের ওপর ১০ শতাংশ হারে ইতিমধ্যে কর বাড়িয়েছে মার্কিন প্রশাসন। এতে চীনকে অতিরিক্ত ২০০ বিলিয়ন আমদানি শুল্ক দিতে হবে মার্কিন মুল্লুককে।
তবে নতুন কর আরোপের বিষয়টি নিয়ে এখনও ভাবনাচিন্তা করা হচ্ছে বলে জানান ট্রাম্প। আগামী আগস্ট মাসের শেষ নাগাদ এ নিয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।
আন্তর্জাতিক বাজারে মার্কিন মুদ্রা ডলারের দর পতন এবং স্থানীয় বাজারে ডলারের বিপরীতে সুদের হার বেড়ে যাওয়ার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) এবং চীনকে বরাবরই দোষারোপ করে আসছে ট্রাম্প প্রশাসন।
চীন থেকে পণ্য আমদানিতে কর আরোপের পাশাপাশি চীনের একচ্ছত্র বাজার নীতিরও সমালোচনা করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। চীনের বাজারনীতিকে ‘আগ্রাসী’ বলেও সম্বোধন করেন তিনি। চীন যদি এমন বাজারনীতি থেকে সরে না আসে তাহলে চীনের বিরুদ্ধে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলেও হুশিয়ারি দেন ট্রাম্প।
প্রসঙ্গত, চলতি বছরের শুরুতেই এক ধরণের ‘বাণিজ্যিক যুদ্ধে’ লিপ্ত আছে চীন ও যুক্তরাষ্ট্র। নিজ দেশে একে অন্যের আমদানি করা পণ্যের ওপর শুল্ক আরোপ করে আসছে দেশ দুইটি। সর্বশেষ চীনের ওপর ২০০ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ কর আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র। এর জবাবে চীনে আমদানি হওয়া মার্কিন পণ্যের ওপর ৫০ বিলিয়ন ডলারের কর আরোপ করে চীন।

No comments

Powered by Blogger.