Header Ads

যেভাবেই হোক তারেককে দেশে ফেরত নেব : প্রধানমন্ত্রী


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি তারেক রহমানকে বাংলাদেশে ফেরত নিতে ব্রিটিশ সরকারের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। ব্রিটিশ সরকারকে আমি বলেছি, দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি এদেশে কীভাবে থাকে? তাকে যেভাবে হোক দেশে ফেরত নেব ইনশাল্লাহ্।’ গতকাল যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি দেশের সর্বনাশ করতে চায়। বিএনপি এই লাফাঙ্গাকে দলের চেয়ারপারসন করেছে। বিএনপিতে কি আর কোনো লোক ছিল না? বিএনপি একটি দেউলিয়া দল। বিএনপি-জামায়াত জোট দেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ চালাচ্ছে। তিনি এই অপপ্রচারের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের সচেষ্ট হতে আহ্বান জানান। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসীদের অবদান আছে। অর্থনীতিতে আপনারা বড় ভূমিকা রাখছেন। যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুকের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের মাধ্যমে যে দলের জন্ম, যারা আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করে, তারা বাংলাদেশের জনগণকে গণতন্ত্রের সবক দেয়, এটাই মানুষের দুর্ভাগ্য।’ তিনি বলেন, ‘যারা গণতন্ত্রের গ বোঝে না, বানান করতে পারবে না— সেই বিএনপি জনগণকে গণতন্ত্রের সবক দিচ্ছে।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল, তারেক রহমান দুর্নীতি করে সম্পদ লুট করে বিদেশে পাচার করেছে। দেশে থাকতে সন্ত্রাস করেছে, এখন লন্ডনে বসেও সন্ত্রাসী কাণ্ড করে যাচ্ছে! এত সাহস পায় কোথায়? লন্ডনের বাংলাদেশ হাইকমিশনে ঢুকে জাতির পিতার ছবি ভাঙচুর করেছে, অবমাননা করেছে। এই দুঃসাহস তারা কোথায় পায়?’ বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিরোধে যা যা করা দরকার, স্থানীয় দলীয় নেতা-কর্মীদের তাই করার নির্দেশ দেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা।
শেখ হাসিনা তার সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে বলেন, ‘নৌকা মার্কা ক্ষমতায় থাকলে জনগণের উন্নয়ন হয়, দেশের উন্নয়ন হয়।’ নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আগামীতেও উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান তিনি।

No comments

Powered by Blogger.