Header Ads

এবার প্রিমিয়ার টিটি লিগে নেই বিমান

ঘরোয়া টেবিল টেনিসের (টিটি) যে কোন আসরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সংশ্লিষ্টতা অনস্বীকার্য। অতীতে এই দলটি সুনামের সঙ্গেই প্রিমিয়ার টিটি লিগে অংশ নিয়েছে। কিন্তু এবার তারা নেই প্রিমিয়ারে! নির্ধারিত সময়ে ফেডারেশনে নাম নিবন্ধন করতে না পারায় আসন্ন প্রিমিয়ার টিটি লিগে খেলতে পারছে না বিমান। যে লিগে খেলে থাকে পুরুষ দলগুলো।
গত ১৫ থেকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রিমিয়ার লিগে অংশ নেয়ার জন্য ক্লাবগুলোর নাম নিবন্ধনের সময়সীমা নির্ধারণ করে টিটি ফেডারেশন। কিন্তু এই সময়ে লিগের ১১টির মধ্যে ১০ ক্লাব নিবন্ধন করালেও বিমান করাতে পারেনি। ফলে নির্ধারিত সময়ে নিবন্ধন না করায় এবারের প্রিমিয়ার লিগে তাদের খেলা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে বিমানের। বিষয়টিতে নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন বিমান কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন এএম মাকসুদ আহমেদ। তিনি বলেন, ‘টিটি ফেডারেশন একটি শয়তানের বাসা। এবার বিমানে খেলার জন্য আমি লাখ লাখ টাকা খরচ করে অন্ত, আসিফ, ওনেজ চৌধুরী, ভারতের অনির্বান ঘোষকে দলে ভিড়িয়েছি। অথচ এখন কিনা আমার দলই খেলতে পারবে না!’ মাকসুদ আরও বলেন, ‘আমি পাইলট। বেশীরভাগ সময় বিমানেই থাকতে হয়। আমাকে একটি বার ফোনে তো নিবন্ধনের কথা জানাতে পারতেন ফেডারেশন কর্তারা। কিন্তু তারা তা না করে এখন নিবন্ধন না করার দোহায় দিচ্ছেন।’ আপনার অন্য ক্লাব উত্তরা টেবিল টেনিস একাডেমি তাহলে নিবন্ধন করতে পারলো কিভাবে? এ প্রশ্নে মাকসুদের উত্তর, ‘হিমেল ও জাভেদ উত্তরার হয়ে খেলছে। ফলে প্রায়শই তাদের ফেডারেশনে যেতে হয়েছে। তাই তারা উত্তরা টিটি একাডেমির নাম নিবন্ধন করিয়েছে। কিন্তু বিমানের জন্য আমাকে ফোনই দেয়া হয়নি।’
এ বিষয়ে ফেডারেশন সাধারণ সম্পাদক খোন্দকার হাসান মুনীর বলেন, ‘এটা হাস্যকর বিষয় যে, একই ব্যক্তি দু’টি ক্লাবের কর্তা হওয়া সত্বেও তার এক ক্লাবকে নিবন্ধন করালেন- আর অন্য ক্লাবটিকে করালেন না। আসলে উনার (মাকসুদ) উদাসীনতার কারণেই এবারের লিগে বিমান নাম নিবন্ধন করাতে পারেনি।’ তিনি যোগ করেন, ‘ফেডারেশনের সহ-সভাপতি ও লিগ কমিটির চেয়ারম্যান শেখ মো. জাহাঙ্গীর আলম আমাদের কাছে যে ক্লাবগুলোর তালিকা পাঠিয়েছেন, তাতে দেখা গেছে প্রিমিয়ার লিগের পুরুষ বিভাগে বিমানের নাম নেই। এতেই আমরা বুঝতে পারি বিমান এবারের লিগে খেলছে না। জাহাঙ্গীর সাহেব জানিয়েছেন, গত বছরও সময় শেষ হয়ে যাওয়ার পর বিমান নাম নিবন্ধন করেছিল। যার প্রতিবাদে অনেকে ভালো মানের দল গড়েনি। তাছাড়া এর আগেও মাকসুদ সাহেব ভারতের নিষিদ্ধ অনির্বান ঘোষকে এনে আমাদের বিপাকে ফেলে দিয়েছিলেন। টেবিল টেনিস ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ার ছাড়পত্র ছিল না তার। কেবলমাত্র পশ্চিমবঙ্গের ছাড়পত্র নিয়ে এসেছিলেন অনির্বান। যা আমাদের গঠনতন্ত্রের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। প্রিমিয়ারের পুরুষ বিভাগে বিমানের নাম নিবন্ধণ করাতে না পারার বিষয়টি নিয়ে আমরা নির্বাহী কমিটির সভায় আলোচনা করবো। দেখি কি করা যায়। তবে ২৮ থেকে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রথম বিভাগে মেয়েদের দলবদলের দিনক্ষণ রয়েছে। সেখানে বিমানকে আমরা সাদরে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।’

No comments

Powered by Blogger.