ত্রিদেশীয় সিরিজের উত্তাপ শুরু

ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে শুক্রবার ঢাকায় এসেছে জিম্বাবুইয়ে ক্রিকেট দল। আজ আসছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। সেই সঙ্গে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের উত্তাপও যেন শুরু হয়ে গেল। ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরু হবে ১৫ জানুয়ারি। হাতে আছে আর দুইদিন। এ দুইদিন আগে জিম্বাবুইয়ে দল এসেছে। আসার কথা ছিল আরও আগে। খেলার কথা ছিল একটি প্রস্তুতি ম্যাচও। কিন্তু আসার সূচীতে পরিবর্তন হয়েছে। আর তাই শুক্রবার বাংলাদেশে এসেছে জিম্বাবুইয়ে দল। আজ যে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচটি ছিল সেটিও তাই বাতিল হয়েছে। দুইদিন অনুশীলন করেই ত্রিদেশীয় সিরিজে খেলতে নামবে জিম্বাবুইয়ে। শ্রীলঙ্কা অবশ্য কয়েকদিন বেশি অনুশীলন করার সুযোগ পাবে। আজ ঢাকায় এসে তিনদিন প্রস্তুত হতে পারবে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটাররা। এরপর ১৭ জানুয়ারি লঙ্কানদের ত্রিদেশীয় সিরিজের মিশন শুরু হবে।
বাংলাদেশ-জিম্বাবুইয়ের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে ১৫ জানুয়ারি ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ শুরু হবে। ২৭ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে সিরিজ। প্রতিটি দল সিরিজে পরস্পরের বিপক্ষে দুটি করে ম্যাচ খেলবে। পয়েন্ট তালিকায় যে দুটি দল সবার ওপরে থাকবে তারাই ২৭ জানুয়ারি ফাইনালে খেলবে। সিরিজের প্রতিটি ম্যাচ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। ম্যাচগুলো দুপুর ১২টায় শুরু হবে। বাংলাদেশ-জিম্বাবুইয়ে প্রথম ম্যাচের পর ১৭ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুইয়ে, ১৯ জানুয়ারি বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা, ২১ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুইয়ে, ২৩ জানুয়ারি বাংলাদেশ-জিম্বাবুইয়ে ও ২৫ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুইয়ের মধ্যকার ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এ সিরিজ শেষে জিম্বাবুইয়ে দল দেশে ফিরে যাবে। শ্রীলঙ্কা দলের বেশিরভাগ ক্রিকেটার বাংলাদেশেই থাকবেন। কারণ ত্রিদেশীয় সিরিজের পর বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট ও দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলবে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। ৩১ জানুয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা প্রথম টেস্ট শুরু হবে। ৮ ফেব্রুয়ারি মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট। ১৫ ফেব্রুয়ারি মিরপুরে প্রথম টি২০ খেলার পর ১৮ ফেব্রুয়ারি সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি২০ ম্যাচ খেলবে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। এক মাসেরও বেশি সময়ের সফরে আসছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। তবে শ্রীলঙ্কা দলের প্রথম মিশন হচ্ছে ত্রিদেশীয় সিরিজ। এ সিরিজের জন্য এরই মধ্যে দল ঘোষণা করেছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। ওয়ানডে দলে এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসকে আবার অধিনায়ক করা হয়েছে। দলে নতুন মুখ পেসার শিহান মদুশঙ্কা। ১৬ সদস্যের দলে ফিরেছেন টেস্ট অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল, কুশল মেন্ডিস এবং লেগস্পিনার ভানিন্দু হাসারাঙ্গা। দলে এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস (অধিনায়ক), উপুল থারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলাকা, কুশল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল, কুসল পেরেরা, থিসারা পেরেরা, আসেলা গুনারতেœ, নিরোশান ডিকওয়েলা, সুরাঙ্গা লাকমল, নুয়ান প্রদীপ, দুশমান্ত চামিরা, শিহান মদুশঙ্কা, আকিলা দনঞ্জয়া, লাকশান সান্দাকান, ভানিন্দু হাসারাঙ্গা রয়েছেন।
এ সিরিজে অংশ নিতে ৮ জানুয়ারি ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে জিম্বাবুইয়ান ক্রিকেট বোর্ড। দলের দুই নতুন মুখ ২০ বছর বয়সী লেগস্পিনিং অলরাউন্ডার ব্র্যান্ডন মাভুতা ও ১৯ বছর বয়সী উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান রায়ান মারে। সঙ্গে অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেলর ও কাইল জার্ভিসও থাকছেন। দলের বাকি সদস্যরা হলেন- হ্যামিল্টন মাসাকাদজা, সোলোমন মির, ক্রেইগ এভরিন, সিকান্দার রাজা, পিটার মুর, ম্যালকম ওয়ালার, গ্রায়েম ক্রেমার (অধিনায়ক), টেন্ডাই চিসোরো, বেজিং মুজারাবানি, ক্রিস্টোফার পোফু ও টেন্ডাই চাতারা। বাংলাদেশ দলে নতুন কোন মুখ নেই। তবে সৌম্য সরকার ও তাসকিন আহমেদের মতো ক্রিকেটাররা বাদ পড়েছেন। সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডের জন্য দল ঘোষণা করেছে বিসিবি। ঘোষিত দলে নেই সৌম্য সরকার, তাসকিন আহমেদ ও লিটন কুমার দাস। সেই সঙ্গে শফিউল ইসলাম, মুমিনুল হকও একই তালিকায় স্থান পেয়েছেন। দল থেকে বাদ পড়েছেন তারা। দলে ফিরেছেন এনামুল হক বিজয়, মোহাম্মদ মিঠুন ও আবুল হাসান রাজু। স্পিনার সানজামুল ইসলামও আবার জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন। দলে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, এনামুল হক বিজয়, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, ইমরুল কায়েস, নাসির হোসেন, সাব্বির রহমান রুম্মন, মোঃ মিঠুন, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, আবুল হাসান রাজু, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, সানজামুল ইসলাম রয়েছেন। তিন দলই শক্তিশালী। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটি সিরিজ দেখার অপেক্ষাতেই আছেন সবাই। শুক্রবার জিম্বাবুইয়ে ক্রিকেট দল ঢাকায় পা রাখতেই সিরিজের উত্তাপ বেড়ে গেছে। আজ শ্রীলঙ্কা দল আসবে ঢাকায়।

Comments