Header Ads

পান্ডা বনাম ঘোড়া

চীনের ঐতিহ্যের সঙ্গে মিশে আছে পান্ডা কূটনীতি। তাং সাম্রাজ্যের সময় সম্রাজ্ঞী উ জেতিয়াং জাপানের সম্রাটকে পান্ডা উপহার দিয়ে এই কূটনীতির সূচনা করেছিলেন। খ্রিষ্টীয় ষষ্ঠ শতকের গোড়ার দিকে চীনে প্রতিষ্ঠিত হয় তাং সাম্রাজ্য। এরপর বেশ কয়েকবারই চীন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান বা সরকারপ্রধানকে পান্ডা উপহার দিয়েছে। এবার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁ চীনের প্রেসিডেন্টকে দিলেন ঘোড়া উপহার। অনেকেই বলছেন, চীনের পান্ডা কূটনীতির অনুসরণ করে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ঘোড়া কূটনীতির আশ্রয় নিয়েছেন। এর উদ্দেশ্য নিশ্চিতভাবেই চীনের প্রেসিডেন্টকে তুষ্ট করা।
চীনের শানসি প্রদেশের সিয়ান শহরে অবতরণের মধ্য দিয়ে গতকাল সোমবার মাখোঁর তিন দিনের চীন সফর শুরু হয়েছে। বেইজিংয়ে গতকালই সি চিন পিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ হওয়ার কথা ছিল তাঁর। ওই সাক্ষাতে চীনের প্রেসিডেন্টকে দেখাতে তাঁর উপহার ঘোড়াটির ছবি সঙ্গে রেখেছেন বলে জানানো হয়েছে ফরাসি প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে। ঘোড়াটির নাম ভিসুভিয়াস দ্য ব্রেক্কা। আট বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত এই ঘোড়া ফ্রান্সের রিপাবলিকান গার্ডে নিয়োজিত ছিল। সর্বশেষ এই ঘোড়া প্রেসিডেন্টবাহী বহরে অংশ নিয়েছিল গত বছরের নভেম্বর মাসে। এই পছন্দের পেছনে অবশ্য আরেকটা কারণ রয়েছে। ২০১৪ সালে ফ্রান্স সফরে গিয়েছিলেন সি চিন পিং। সে সময় ১০৪টি সুসজ্জিত ঘোড়ায় চেপে ফরাসি সেনারা তাঁকে অভিবাদন জানিয়েছিল। চীনের প্রেসিডেন্ট এতে মুগ্ধ হয়েছিলেন।
মাঁখোর চীন সফর শুরুর চার দিন আগেই ভিসুভিয়াস নামের ঘোড়াটি চীনে পৌঁছে গেছে। বিশেষ প্লেনে করে ফ্রান্সের রিপাবলিকান গার্ডের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ও এক সদস্য ঘোড়াটিকে নিয়ে চীনে অবতরণ করেন ৪ জানুয়ারি।
চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এই বিশেষ উপহারের জন্য ফরাসি প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। নিয়মিত ব্রিফিংয়ের সময় এই মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু কাং বলেন, ‘আমরা এই পদক্ষেপের তারিফ করছি এবং এমন পদক্ষেপের জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’ তিনি ফরাসি প্রেসিডেন্টের এই সফর ‘অত্যন্ত গুরুত্ববহ’ বলেও উল্লেখ করেন।

No comments

Powered by Blogger.