অবশেষে বার্সায় কুতিনহো!

লিভারপুলের কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের সেই বাণী আর টিকল না! তিনি বলেছিলেন, ফিলিপে কুতিনহো বিক্রির জন্য নয়! অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ফিলিপে কুতিনহো চলে যাচ্ছেন স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনায়। এর মধ্য দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চলা গুঞ্জনেরও অবসান ঘটল। বার্সেলোনার কাছে ১৪২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে কুতিনহোকে ছেড়ে দিতে সম্মত হয়েছে লিভারপুল। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ১ হাজার ৫৯৪ কোটি টাকারও বেশি। ব্রাজিলীয় এই মিডফিল্ডারের দল পরিবর্তন অর্থের পরিমাণে যা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ে যাওয়ার সময় ২০০ মিলিয়ন পাউন্ডে বার্সেলোনা ছাড়েন নেইমার, এটিই এখন পর্যন্ত কোনো ফুটবলারের দল পরিবর্তনে সর্বোচ্চ প্রাপ্ত ফি।   ২৫ বছর বয়সী কুতিনহো ইন্টারমিলান থেকে ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে লিভারপুলে যোগ দেন। সে সময় দল পরিবর্তনের জন্য তিনি পেয়েছিলেন ৮ দশমিক ৫ মিলিয়ন পাউন্ড। সর্বশেষ মৌসুমে ১৪ গোলসহ লিভারপুলের হয়ে মোট ১৮১ ম্যাচে ৪২ গোল করেছেন এই প্লে মেকার। নিজের মেধা আর ক্রীড়ানৈপুণ্য দিয়ে মাত্র পাঁচ বছরের ব্যবধানে নিজের অবস্থান এতটা ওপরে নিয়ে গেলেন তিনি। 
লিভারপুলে কুতিনহোর সতীর্থরা অবকাশযাপনের জন্য চলে গেছেন দুবাইয়ে। তাঁকে নিয়ে শেষ মুহূর্তের আলোচনা চলার কারণে তিনি মেরিসাইডে বসে অপেক্ষা করছিলেন এই ক্ষণটির জন্য। ধারণা করা হচ্ছে, পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দলবদলের বাকি বিষয়গুলো স্পেনে চূড়ান্ত করা হবে। স্প্যানিশ জায়ান্ট ক্লাব বার্সেলোনা গত গ্রীষ্মে প্রথম যখন কুতিনহোকে কেনার প্রস্তাব দিয়েছিল, তখন থেকেই তিনি অপেক্ষায় ছিলেন এই দিনটির জন্য। লিভারপুল কুতিনহোর জন্য ১০৫ মিলিয়ন পাউন্ড পাবে বার্সেলোনার কাছ থেকে। বাকি অর্থ  শর্ত সাপেক্ষে। গত জুলাইয়ে বার্সেলোনা প্রথম কুতিনহোকে কেনার জন্য ৭২ মিলিয়ন পাউন্ডের প্রস্তাব দিয়েছিল। সেটি প্রত্যাখ্যান করেছিলেন লিভারপুলের কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ। নেইমারের দল ছাড়ার পর এই ব্রাজিলীয়কে দলে টানার আগ্রহটা প্রকাশ করে আসতে থাকে কাতালান ক্লাবটি। এর কারণ হিসেবে তারা কুতিনহোকে নেইমারের ভালো বিকল্প হিসেবে ভেবে রেখেছিল।



Comments