রোহিঙ্গা সংকট বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত প্রায় ৯ লাখ

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মধ্যে প্রায় ৯ লাখের বায়োমেট্রিক (আঙ্গুলের ছাপ) পদ্ধতিতে নিবন্ধন হয়েছে। গত ১১ সেপ্টেম্বর থেকে এ নিবন্ধন প্রক্রিয়া শুরু হয়।

বহিরাগমন বিভাগ ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু নোমান মোহাম্মদ জাকির হোসেন বলেন, আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৮ লাখ ৯১ হাজার ৯৯৪ জন রোহিঙ্গা নারী, পুরষ ও শিশুকে নিবন্ধনের আওতায় আনা হয়েছে।

আবু নোমানবলেন, বহিরাগমন বিভাগ ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ সেনা বাহিনী, বিজিবি, আনসার ও ইউএনএইচসিআরের কর্মীরা রোহিঙ্গাদের নিবন্ধনের কাজ করছেন। উখিয়া ও টেকনাফে ১২টি আশ্রয় কেন্দ্রে বসবাসকারী রোহিঙ্গাদের ৭টি ক্যাম্পের মাধ্যমে গত ১১ সেপ্টেম্বর থেকে রোহিঙ্গাদের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধনের কাজ শুরু করা হয়। এর মধ্যে তিন মাস ১০দিনে ৮ লাখ ৯১হাজার ৯৯৪জন রোহিঙ্গাকে নিবন্ধনের আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে।

গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে নিরাপত্তা বাহিনীর কয়েকটি অবস্থানে একযোগে সন্ত্রাসী হামলা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী রাখাইনে রোহিঙ্গাবিরোধী অভিযান শুরু করে। এরপর বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের ঢল নামে। এখনো থেমে থেমে রোহিঙ্গারা আসছেন।

Comments