সানসিল্ক-নকশা বিয়ে উৎসব নানা সাজের কনে, নানা রঙের বর

বিয়ের শাড়ি পরে ওড়নায় মুখ ঢেকে মঞ্চে এলেন কনে। একটু পরে বর। বর ফারুক সেই ওড়না সরিয়ে দেখলেন, কনে আর কেউ নন, তাঁর স্ত্রী মডেল পিয়া। অনুষ্ঠানমঞ্চে যা ছিল অপ্রত্যাশিত। কেন? এই দম্পতির কথোপকথনের মধ্য দিয়ে সেসব জানা যায়। এভাবেই শুরু হয় দুই দিনের জমজমাট বিয়ে উৎসবের শেষ আয়োজন—ফ্যাশন শো ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের গ্র্যান্ড বলরুমে এই অনুষ্ঠানের শুরুতেই ছিল বিয়ের গান। চিরকুটের নব সংগীতায়োজনে ‘এমন মজা হয় না’ গানটি গেয়ে শোনান কোনাল, পূজা ও সভ‍্যতা। এ বছরই বিয়ে হয়েছে এই তিন শিল্পীর। গায়েহলুদের নাচ নিয়ে আসেন সামিনা হোসেন প্রেমা ও তাঁর দল ভাবনা।

অনুষ্ঠানের দুই উপস্থাপক পিয়া-ফারুক মঞ্চে ডেকে নেন প্রথম আলোর ফিচার সম্পাদক সুমনা শারমীনকে। তিনি বলেন, ‘প্রথম আলো সুন্দর জীবনযাপনের কথা বলে। এ নিয়ে মঙ্গলবার প্রকাশিত হয় ক্রোড়পত্র নকশা। এতে বিয়ের বাজার দেশে করতে সব সময় উৎসাহিত করা হয়।’ গতকাল ছিল মডেল নোবেলের জন্মদিন। তাঁকে মঞ্চে ডেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো হয়। শুভ্র দেব মঞ্চে এসে খালি গলায় গেয়ে শোনান ‘হ‍্যামিলিনের বাঁশিওয়ালা’ গানটি।

‘বিয়ের বাজার দেশেই’ প্রতিপাদ্য নিয়ে চতুর্থবারের মতো আয়োজিত বিয়ে উৎসবের ফ্যাশন শোর শুরুতেই ছিল দেশি শাড়ির কিউ। নকশায় বিভিন্ন বছরে বউ সেজেছেন তাঁদের কয়েকজন—বাঁধন, আইরিন, দোয়েল, টয়া, ঈতিশা ও জেসিয়া হাঁটেন এই কিউতে। এরপরই দেখা গেল বরের পোশাকে সজ্জিত মডেলদের। তাঁদের সঙ্গে হাঁটলেন বিয়ের ভিন্ন পোশাকে কনে সাজা মডেলরাও।

বাংলাদেশে তৈরি কনের পোশাক যে গুণে-মানে উন্নত, তা দেখা গেল তিন ফ্যাশন ডিজাইনার মুনিরা এমদাদ, মায়া রহমান ও মাহিন খানের পোশাকে। মঞ্চে মডেলদের সঙ্গে হাঁটেন মুনিরা এমদাদ, মায়া রহমানও।

অনুষ্ঠানে প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, বাংলাদেশে এখন বড় হয়েছে বিয়ের বাজার। বাংলাদেশের অনেক সাফল‍্য আছে। আমরা চাই চিকিৎসা, শিক্ষা, রাজনীতি—সব ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জয়। মঞ্চে এসে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বিয়ে উৎসবের পৃষ্ঠপোষক ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেডের হেড অব পারসোনাল কেয়ার নাফিস আনোয়ার।

মুরব্বি ছাড়া কি বিয়ে হয়? তাই তো মঞ্চে দেখা গেল মা-শাশুড়িদের কিউ। এতে অংশ নেন দিলারা জামান, শর্মিলী আহমেদ, শম্পা রেজা ও চিত্রলেখা গুহ। এরপর ‘সে যে কেন এল না’ গানের সঙ্গে মঞ্চে হাঁটেন অভিনেত্রী কবরী।

ফ্যাশন শোর সবশেষে ছিল একঝাঁক তারকার উপস্থিতি। দেশি পোশাক পরে র‍্যাম্পে হাঁটেন নোবেল, ফেরদৌস, পূর্ণিমা, নিপুণ, শুভ, মিম, মেহজাবীন, নাবিলা ও বুবলী। হাঁটা শেষে তাঁদের নিয়ে মঞ্চে সেলফি তোলেন পিয়া ও ফারুক। বিয়ের ভোজ দিয়ে শেষ হয় এই অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে আলাপচারিতায় অংশ নেন মুক্তি প্রতীক্ষিত চলচ্চিত্র গহীন বালুচর-এর প্রযোজক সুবর্ণা মুস্তাফা, পরিচালক বদরুল আনাম সৌদসহ ছবির অভিনয়শিল্পীরা।

ফ্যাশন শোর সব মডেল ও তারকাকে সাজিয়েছেন কানিজ আলমাস খান ও পারসোনা। কোরিওগ্রাফার ছিলেন আজরা মাহমুদ। উৎসবের মেলা, মঞ্চসজ্জা, আলোকসজ্জা করেছে ক্রিয়েটো। সম্প্রচার সহযোগী ছিল চ্যানেল আই।

ফ্যাশন শোর পোশাক সরবরাহ করেছে কুমুদিনী, টাঙ্গাইল শাড়ি কুটির, বেনারসি কুঠি, ওটু, লুবনান, নাবিলা, স্টুডিও এমদাদ, রিলাস ও কনক। গয়না ছিল ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, স্পার্কেল ও কনকের।

গত মঙ্গলবার সোনারগাঁও হোটেলের ওয়েসিসে শুরু হওয়া সানসিল্ক-নকশা বিয়ে উৎসবের দুই দিনই ছিল মেলা। এতে বিয়ের সব অনুষঙ্গ নিয়ে অংশ নেয় দেশি প্রতিষ্ঠানগুলো। মেলায় সেরা স্টলের পুরস্কার পায় লুবনান, রেড বিউটি স্যালন ও কনক দ্য জুয়েলারি প্যালেস।

উৎসবটির আয়োজন করেছিল প্রথম আলোর মঙ্গলবারের ক্রোড়পত্র নকশা এবং ইউনিলিভারের ব্র্যান্ড সানসিল্ক।

Comments