১০১ বছরের 'তরুণী' জিতলেন ক্যারিয়ারের ১৭ নম্বর সোনা!


 বয়স শুধুই একটি সংখ্যা। ইচ্ছা থাকলে এবং শরীর ফিট থাকলে কিছু জয় করতে বয়স কোনো বিষয়ই নয়। ব্যাপারটা আবারও প্রমাণ করলেন মন কৌর। নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডে সোমবার ওয়ার্ল্ড মাস্টার্স গেমসে ১০০ মিটার স্প্রিন্টে অংশ নিয়ে সোনা জিতেছেন ভারতের চন্ডিগড়ের ১০১ বছর বয়সী এই অ্যাথলেট।
১০১ বছর বয়সী এই নারী অ্যাথলেটের ক্যারিয়ারে এটা ১৭তম সোনা। ৯৩ বছর বয়সে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন কৌর। আট বছরেই ১৭টি সোনার পদক তার ঝুলিতে। বিশ্বের বড় বড় অ্যাথলেটদের রীতিমতো লজ্জা দিতে পারে তার এই রেকর্ড। ১০০ মিটার স্প্রিন্ট শেষ করতে কৌর সময় নেন ১ মিনিট ১৪ সেকেন্ড।

১০০ বছর বা তার বেশি বয়সী ক্যাটাগরির এই ইভেন্টে কৌরই একমাত্র প্রতিযোগী ছিলেন। এই বয়সে ১০০ মিটার স্প্রিন্টে অংশ নিয়ে সবার নজর কাড়েন তিনি। ঘড়ির কাঁটার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দৌড়ানো নয়, বরং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণই ছিলো কৌরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।দৌড় শেষ করার পর কৌরের চোখে-মুখে দেখা যায় বিজয়ের হাসি।
১০০ মিটার স্প্রিন্ট শেষ করতে শতবর্ষী এই নারী অ্যাথলেট সময় নেন ১ মিনিট ১৪ সেকেন্ড। দৌড় শেষ করার পর কৌরের চোখে-মুখে দেখা যায় বিজয়ের হাসি। উচ্ছ্বসিত ভঙ্গিতে ‘ভি’ চিহ্নও দেখান তিনি। এরপর পরিবারের সদস্য ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা তাকে অভিনন্দন জানান।পরিবারের সদস্য ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের অভিনন্দনে ভাসছেন মন কৌর।
এই বয়সেও ইস্তফা দিতে নারাজ কৌর। ভবিষ্যতেও দৌড় চালিয়ে যেতে চান। দৌড় শেষে সাংবাদিকদের শতবর্ষী এই নারী অ্যাথলেট বলেন, 'অনেক অনেক খুশি আমি। প্রতিযোগিতা উপভোগ করছি। দৌড় ছাড়বো না। ২০০ মিটার স্প্রিন্ট, ২ কেজি শট পুট ও ৪০০ গ্রাম জ্যাভেলিনেও প্রতিযোগিতা করতে চাই।'
ওয়ার্ল্ড মাস্টার্স গেমসে ২০০ মিটার স্প্রিন্ট ছাড়াও শট পুট ও বর্শা নিক্ষেপে অংশ নেবেন কৌর। ক্রীড়ার এই আসরে কৌরকে পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন আয়োজকরা। ওয়ার্ল্ড মাস্টার্স গেমস ২০১৭-এর প্রধান নির্বাহী জিন্নাহ উটেন বলেন, ‘সবার জন্য ক্রীড়া’- এই দর্শনের বাস্তব উদাহরণ কৌর।

Comments