Header Ads

গাজায় একের পর এক ইসরায়েলি হামলা

সর্বাত্মক আন্দোলনে নামা ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি বাহিনীর আগ্রাসন অব্যাহত রয়েছে। গাজায় গতকাল মঙ্গলবার ইসরায়েলি সেনাদের হামলায় দুই ফিলিস্তিনি যুবক নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া স্বাধীনতাকামী দল হামাসের স্থাপনায় বিমান ও ট্যাংক হামলা চালানো হয়েছে।
এদিকে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে ট্রাম্পের স্বীকৃতির পরিপ্রেক্ষিতে আজ বুধবার তুরস্কের ইস্তাম্বুলে বসছে মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলোর সংস্থা ওআইসির বিশেষ সম্মেলন। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান এই সম্মেলন আহ্বান করেছেন। এতে যোগ দিচ্ছেন বিভিন্ন মুসলিম দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানেরা।
ইন্তিফাদা (গণ-অভ্যুত্থান) ঘোষণার পর গতকাল ষষ্ঠ দিনের মতো উত্তপ্ত ছিল গাজা উপত্যকা। গাজার উত্তরাঞ্চলে একটি মোটরসাইকেল লক্ষ্য করে হামলা চালায় ইসরায়েল। এতে দুই যুবক মারা যান বলে জানিয়েছেন ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল-কুদরা। ইসরায়েলি সেনা কর্তৃপক্ষ অবশ্য ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। এ নিয়ে গত ছয় দিনের আন্দোলনে ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় ছয়জন ফিলিস্তিনি নিহত হলেন। আহত হাজারের বেশি।
এদিকে গত সোমবার রাতে গাজার দক্ষিণাংশে হামাস স্থাপনায় বিমান ও ট্যাংক হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। এক বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, হামাস গাজা থেকে ইসরায়েলের ভূখণ্ডে দুটি রকেট নিক্ষেপ করে। এর মধ্যে দ্বিতীয়টি ধ্বংস করা হয়। এরপরই হামাস স্থাপনা লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়। প্রথম রকেটটি কোথায় পড়েছে এবং কোনো হতাহত আছে কি না, তা নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ।
বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে ইসরায়েলি বাহিনীর সংঘর্ষ হয়েছে পশ্চিম তীরের রামাল্লা ও বেথলেহেমে।
গতকাল ফিলিস্তিনের পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের স্বীকৃতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ হয়েছে। চিলির রাজধানী সান্তিয়াগোতে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ হয়েছে। বিক্ষোভকারীরা দূতাবাসের দিকে এগোতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বাধে। জলকামান ব্যবহার করে পুলিশ। বিক্ষোভ হয়েছে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে। সেখানে সোশ্যালিস্ট ইউনিটি সেন্টার অব ইন্ডিয়ার সদস্যরা বিক্ষোভ করে ট্রাম্পের কুশপুত্তলিকা পোড়ান। আরও বিক্ষোভ হয়েছে শ্রীলঙ্কার কলম্বো, পাকিস্তানের পেশোয়ার এবং আফগানিস্তানের বাদাখশান প্রদেশে।

পুতিনের সমালোচনা
আল-জাজিরা জানায়, মুসলমানদের পবিত্র ভূমি জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী স্বীকৃতি দেওয়ায় ট্রাম্পের সমালোচনা করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সোমবার তুরস্কের আঙ্কারায় তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের সঙ্গে বৈঠকের পর পুতিন বলেন, ট্রাম্পের ঘোষণা শান্তি-প্রক্রিয়াকে ‘ব্যাহত’ করতে পারে।
সোমবার এক দিনের সফরে হুট করে সিরিয়া, মিসর ও তুরস্কে যান পুতিন। মিসরের কায়রোতে দেশটির প্রেসিডেন্ট আবদুল ফাত্তাহ আল-সিসির সঙ্গে বৈঠকেও জেরুজালেম প্রসঙ্গ চলে আসে। আঙ্কারায় এরদোয়ানের সঙ্গে বৈঠকে পুতিন বলেন, ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের মধ্যে সরাসরি আলোচনার মাধ্যমেই জেরুজালেম সমস্যার সমাধান করতে হবে। এ নিয়ে মার্কিন সিদ্ধান্ত মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রচেষ্টায় কার্যকর হবে না।
বিশ্লেষকেরা বলছেন, জেরুজালেম নিয়ে সিদ্ধান্তের পর ট্রাম্পের ওপর মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপক ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। এই পরিস্থিতি কাজে লাগতে চাইছেন পুতিন। সিরিয়া যুদ্ধে রুশ সাফল্যের পর মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম খেলোয়াড় হয়ে উঠেছেন পুতিন।
এদিকে বিশ্বব্যাপী বিক্ষোভ-প্রতিবাদের মাঝে ‘শান্তির বার্তা’ নিয়ে ইসরায়েলে যাওয়া বাহরাইনের একটি প্রতিনিধিদলকে ফিলিস্তিনের গাজায় প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি।

No comments

Powered by Blogger.