বর্ণিল বিয়ে উৎসবে...

চারদিকে বিয়ে বাড়ির সাজ। কোথাও চলছে মেহেদি দিয়ে হাত রাঙানোর ধুম। কেউ পালকিতে চড়ে কনের ভূমিকায় নিজেকে দেখতে চাচ্ছেন—কেমন মানায়। এরই মধ্যে চলছে ক্যামেরার ক্লিক। এভাবেই দর্শকের পদচারণে জমে উঠেছে সানসিল্ক নকশা বিয়ে উৎসব।

ইউনিলিভারের ব্র্যান্ড ‘সানসিল্ক’ ও প্রথম আলোর মঙ্গলবারের ক্রোড়পত্র ‘নকশা’র আয়োজনে চতুর্থবারের মতো হচ্ছে এ উৎসব। গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের ওয়েসিস মাঠে এ আয়োজন চলছে। ‘বিয়ের বাজার দেশেই’ প্রতিপাদ্য নিয়ে শুরু হওয়া এ উৎসব চলবে আজ রাত নয়টা পর্যন্ত। চ্যানেল আই এই উৎসবের সম্প্রচার সহযোগী।

লিপিকা সরকার নামের এক নারী উৎসবে এসে সানসিল্কের স্টল থেকে চুল বেঁধে নিয়েছেন। শখের বশে ছবিও তুলেছেন। তিনি বলেন, এখানে এসে যে ধারণা পেয়েছেন, তা কাছের লোকদের বিয়ের আয়োজনে কাজে লাগবে।

সানসিল্কের স্টল থেকে চেহারার সঙ্গে মিল রেখে চুল বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। সেখানে ছবি তোলারও ব্যবস্থা আছে। এসব বিনা মূল্যে। উৎসবে থাকা পারসোনার স্টলে বেশ ভিড়। এখানেও বিনা মূল্যে মেহেদি পরার ব্যবস্থা আছে। প্রায় সব স্টলেই আছে বিভিন্ন ছাড়। বিয়ের মৌসুম হওয়ায় অনেকেই ছাড়ের সুযোগ নিয়ে প্রয়োজন অনুযায়ী বুকিং দিচ্ছেন।

আগামী মাসে বিয়ে রিয়াদ নামের এক তরুণের। তাই খুঁটিনাটি সব জানতেই তিনি এ উৎসবে এসেছেন। তিনি বলেন, ‘এখান থেকে কিছু অর্ডার করব কি না শিওর না। তবে ঘুরে ভালো আইডিয়া পেলাম। বিয়ের বাজেট করতে সুবিধা হবে।’

ছেলেকে নিয়ে ঘুরছিলেন সন্তোষ দাশ গুপ্ত। হাতে বিভিন্ন স্টল থেকে পাওয়া প্রচারপত্র। তিনি বলেন, ‘আমার কাছে অনেকেই জানতে চান কোথায় কী পাওয়া যায়। এ প্রোগ্রাম থেকে ধারণা নিচ্ছি। আর আমাদের দেশে ধনীরা জানেন না যে দেশের ভেতরে বিয়ের এত বড় বাজার আছে।’

আজ দুপুরের দিকে বিয়ে উৎসবের মঞ্চে চলছিল চৈতি সংগীত দলের গীত পরিবেশনা। ঘুরে দেখার পাশাপাশি কেউ কেউ মঞ্চের কাছে বসে গান শুনছিলেন। আয়েশা রহমান নামের একজন দর্শনার্থী গান নিয়ে বলেন, ‘এখন তো বিয়ে মানেই বিদেশি গান। আমাদের দেশেও যে বিয়ের সুন্দর সুন্দর গান আছে তা জানা ছিল না।’

উৎসব থেকেই বিশেষজ্ঞদের কাছে থেকে দর্শনার্থীরা জানতে পারছেন বিয়ের সাজ, ছবি তোলা থেকে শুরু করে বিভিন্ন পরামর্শ। উৎসবের এক কোনায় রাখা পালকি ঘিরে বেশ জটলা। সেখানে কনের সাজে একজন মডেল পালকিতে চড়েছেন। তাঁকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে মঞ্চের দিকে। প্রতীকী এই বউকে একনজর দেখার আগ্রহ কম ছিল না দর্শনার্থীদের।

বিয়ে উৎসবের মেলায় এবার অংশ নিয়েছে ইউনিলিভার বাংলাদেশ, পারসোনা, প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও, ড্রিম উইভার, লুবনান, রিগ্যাল ফার্নিচার, অরা বিউটি লাউঞ্জ, ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, দ্য রেমন্ড শপ, রস মিষ্টি, ডিবিএল গ্রুপ, রেড বিউটি পারলার অ্যান্ড স্পা, লাভেলো আইসক্রিম, পিন পয়েন্ট, স্বাদ পিঠা ঘর, হোয়াইট স্যান্ড রিসোর্ট, শারিন, ইগো ভিশন, বানী’স ক্রিয়েশন, ম্যারেজ সলিউশন বিডি, বিআরবি হসপিটাল লিমিটেড, প্রিমিয়ার ক্যাটারিং, মমতাজ হারবাল প্রোডাক্টস, প্রচিত হলিডেজ, টাঙ্গাইল শাড়ি কুটির লিমিটেড, নিজল ক্রিয়েটিভ ফটোগ্রাফি, ড্রেসিডেল, কনক দ্য জুয়েলারি, দেশীদশ, ভিগো কালেকশন, ওরিয়ন গ্রুপ ও প্রথমা প্রকাশন।

Comments