কানের কোন ক্ষতি ছাড়াই গান শুনবেন কিভাবে?

প্রযুক্তির এই যুগে আমাদের হাতে এখন অনেক উপাদান রয়েছে, এটা অস্বীকার করার কোন উপায় নেই। গান শোনার জন্য হাতের এন্ড্রয়েড সেটটি যেমন রয়েছে, ঠিক তেমনি রয়েছে আরো নানা ধরণের মিউজিক প্লেয়ার। নিজেদের ইচ্ছেমত নানা ধরণের গান আমরা এগুলোর সাহায্যে শুনতে পারি। কিন্তু কথা হচ্ছে, কানে হেডফোন গুঁজে রাখলে নানা ধরণের ক্ষতি হতে পারে কানের। শ্রবণশক্তি দূর্বল হওয়া থেকে শুরু করে কানের স্পর্শকাতর পর্দাও অনেক সময় নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এমন কি কোন উপায় আছে যার মাধ্যমে শ্রবণশক্তির কোন ক্ষতি ছাড়াই আমরা গান শুনতে পারি নির্দ্বিধায়? তাই নিয়ে আমাদের আজকের এই আয়োজনঃ

১) আপনার ফোনের ম্যাক্সিমাম ভলিউম যতটুকু, তার ৬০% এর বেশি ভলিউমে গান না শোনাই ভালো।
২) উঁচু ডেসিবেলের শব্দ আমাদের কানের জন্য আসলেই খারাপ এ কথাটি বিজ্ঞানীরাও স্বীকার করেন। তাদের একটি গবেষণা অনুযায়ী উঠে এসেছে যে ২৪ ঘন্টার মাঝে ৫৫-৬০ মিনিট গান শোনাই যথেষ্ট। এর চাইতে বেশি সময় ধরে শুনলে নানা ধরণের ক্ষতি হতে পারে।

৩) বাজারে নানা ধরণের নয়েজ ক্যানসেলিং হেডফোন পাওয়া যায়। এর মাধ্যমে গান শুনতে যেমন আরাম পাওয়া যায়, ঠিক তেমনিও কানেরও কোন ক্ষতি হয় না। হেডফোন কিনতে গেলে তা নয়েজ ক্যানসেলিং কি না তা যাচাই করে নিন।
৪) যখন আমরা কোলাহল পূর্ণ কোন জায়গায় থাকি, স্বভাবতই গান শোনার জন্য তার চাইতেও উচ্চ মাত্রায় গানের ভলিউমটি বাড়িয়ে দেই। এই কাজটি কখনো করা যাবে না। আপনি ঐ জায়গা থেকে সরে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন, কিংবা হালকা লয়ে গান শুনতে থাকুন।

Comments